দাবি না মানায় আবারও রাস্তায় শিক্ষার্থীরা

78

পূর্ব ঘোষিত তিনদফা দাবি না মানায় ৪৮ ঘণ্টায় আল্টিমেটাম শেষে পুনরায় মহাসড়ক অবরোধ করে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (ববি) শিক্ষার্থীরা। শুক্রবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যার পর মশাল মিছিল করে তারা।

বিক্ষোভ মিছিল শেষে ক্যাম্পাসের মূল ফট’কের সামনে বরিশাল কুয়াকা’টা মহাসড়কে অবরোধ করে তারা। সন্ধ্যার পর বিশ্ববিদ্যালয়ের একই জায়গা থেকে শুরু করে মশাল মিছিল। মিছিলটি বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনের বরিশাল কুয়াকা’টা মহাসড়ক একাধিকবার প্রদক্ষিণ করে। এসময় দাবি আদায়ের জন্য বিভিন্ন স্লোগান দেয় তারা।

আন্দোলনকারীরা অ’ভিযোগ করেন, মঙ্গলবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) মধ্যরাতে তাদের ওপর বর্বরোচিত হা’ম’লার ঘটনায় পু’লিশ র’হ’স্যজনক কারণে এখনো কাউকে আ’ট’ক করেনি।

বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে আ’হতরা হা’ম’লাকারীদের নামের তালিকা প্রদান করলেও প্রশাসন তাদের বি’রু’দ্ধে মা’ম’লা না করে অ’জ্ঞা’তদের আ’সা’মি করে থা’নায় লিখিত অ’ভিযোগ দেয়। যা শিক্ষার্থীরা প্রত্যাখান করেছে। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যাবার ঘোষণা দেন তারা।

এর আগে, মঙ্গলবার সকাল ৭ টা থেকে পরবর্তী ১০ ঘণ্টা মহাসড়ক অবরোধ করে রেখেছিলেন শিক্ষার্থীরা। সেদিন বিকেলে এ ঘটনায় দোষীদের বি’রু’দ্ধে মা’ম’লা করা, দোষীদের দ্রুত আইনের আওতায় আনা এবং অনাবাসিক শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা বিধানে ভূমিকা নেয়ার তিনদফা দাবি উত্থাপন করে শিক্ষার্থীরা। এসব দাবি পূরণে শুক্রবার বিকেল ৫টা পর্যন্ত সময় বেঁধে দিয়েছিল তারা।

ম’স’জিদের মাইকে ঘোষণা দিয়ে জাবি শিক্ষার্থীদের উপর হা’ম’লা
জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন গেরুয়া এলাকায় ক্রিকেট খেলার জের ধরে সাধারণ শিক্ষার্থীদের উপর দেশীয় অ’স্ত্রে হা’ম’লা করেছে স্থানীয় লোকজন।এই ঘটনায় এখন পর্যন্ত মা’থা ফেটে র’ক্তাক্ত হয়েছেন ৫ জন শিক্ষার্থী। আ’হত হয়েছেন বেশ কয়েকজন। আ’হতদের বিশ্বিবদ্যালয় মেডিকেল সেন্টারে ভর্তি করা হয়েছে।

গেরুয়া এলাকায় অবস্থানরত শিক্ষার্থীরা জানায়, ক্রিকেট খেলাকে কেন্দ্র করে কয়েকদিন আগে ছোটখাটো ঝামেলা হয়। এরপর শুক্রবার আবার কথা কা’টাকাটির জের ধরে সং’ঘ’র্ষের সূত্রপাত ঘটে।

শিক্ষার্থীরা জানান, শুক্রবার সন্ধ্যায় ম’স’জিদের মাইক ব্যবহার করে মাইকিং করে স্থানীয় না’রী পুরুষ একত্রে জড়ো হয়ে শিক্ষার্থী মেসগুলোতে হা’ম’লা করার জন্য উসকানি দেয়া হয়। এরপর শিক্ষার্থীদের ওপর হা’ম’লা ও কয়েকজন শিক্ষার্থীকে মেসে অ’ব’রু’দ্ধ করে রাখা হয়েছে।

সং’ঘ’র্ষের বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর আ স ম ফিরোজ উল হাসান বলেন, এলাকাবাসীর সাথে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের সং’ঘ’র্ষের ঘটনা ঘটেছে। পরিস্থিতি কিছুটা থমথমে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সাহায্য নিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা চলছে৷ সেই সাথে এই ন্যাক্কারজনক ঘটনার কারণ খতিয়ে দেখা হচ্ছে।